পন্তের ঝড়ে উড়ে গেল মুম্বাই


৩৫ বলে ৫৩ রান। ৫ চার ও ৩ ছক্কা। যেকোনো বিচারে দুর্দান্ত ইনিংস। ৩৭ বছর বয়সী যুবরাজ সিংয়ের ইনিংসটিকে তবু আজ শুধু ভালো বিশেষণেই সন্তুষ্ট হতে হবে। কারণ ম্যাচের প্রথম ভাগেই ঋষভ পন্ত নিশ্চিত করেছেন এ ম্যাচটা শুধু তাঁর।

পন্তের তাণ্ডবের জবাবে যুবরাজের ৫৩ বড় কম হয়ে গেছে আজ। পন্তে চড়ে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে ৩৭ রানে হারিয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালস।
পাওয়ার প্লেতে দুই উইকেট হারানো দিল্লির ইনিংস কোনোভাবেই গতি পাচ্ছিল না। শেখর ধাওয়ানের মতো ব্যাটসম্যানও বল প্রতি রান তুলতে পারছিলেন না।

কলিন ইনগ্রামের চেষ্টায় রানরেট আট ছুঁতে পেরেছে দশ ওভার পেরিয়ে যাওয়ার পর। ১৩তম ওভারে ৩২ বলে ৪৭ করা ইনগ্রামও ফিরলেন। দলের রান তখন ১১২। দুই ওভার পর ধাওয়ান (৩৬ বলে ৪৩) যখন আউট হচ্ছেন তখন দিল্লির রান ১৩১। শেষ ৫ ওভারে স্কোরটা ১৮০তে নিতে পারলেই বড় সাফল্য ভাবা হচ্ছিল।


কিন্তু ঋষভ পন্ত উইকেটে থাকলে ওভাবে লক্ষ্য স্থির করা কঠিন। ধাওয়ান বিদায় নেওয়ার পর নামা অন্য ব্যাটসম্যানদের অবদান যথাক্রমে ৩ (পল), ৪ (প্যাটেল) ও ৯*(তেবাতিয়া)। তবু ২০ ওভার শেষে দিল্লির স্কোরবোর্ডে ২১৩ রান! ৭ চার ও ৭ ছক্কায় ২৭ বলে ৭৮ রান নিয়েছেন পন্ত। ২৮৮.৮৮ স্ট্রাইকরেটের সঙ্গে জসপ্রীত বুমরা ও হার্দিক পান্ডিয়াদের বেদম পিটিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন, আসছে বিশ্বকাপে তাঁকে নিয়ে একাদশ গড়াটাই ভালো হবে ভারতের।


তাড়া করতে নামা মুম্বাইয়ের জয়ের জন্য দুই ওপেনারের বড় স্কোর দরকার ছিল। কিন্তু রোহিত শর্মা ও কুইন্টন ডি কক কেউ সেটা করতে পারেননি। পোলার্ড বা পান্ডিয়া ভাতৃদ্বয়ও ব্যর্থ হয়েছেন। কাগিসো রাবাদা, ট্রেন্ট বোল্ট ও ইশান্ত শর্মাদের সামনে যুবরাজের ইনিংসটি কোনো কাজেই লাগেনি। ৪ বল আগে ১৭৬ রানে থেমে গেছে মুম্বাইয়ের ইনিংস।

No comments

Powered by Blogger.